সফল হতে চাইলে কি করবে?

সফল হতে চাইলে তোমার করণীয় কি হতে পারে এটা সম্পর্কে ইতিমধ্যে তুমি অবগত তার পরেও তুমি ইন্টারনেটের বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে গিয়ে সার্চ করো কিভাবে খুব সহজে সফল হওয়া যায়। কিভাবে অল্প কষ্ট করে মানুষ স্টাবিলাইজ সফল হতে পারে। কিন্তু তোমারে সার্চ গুলো কতটা যুক্তিগত তুমি বুঝতে পারো?

আজ অব্দি তুমি শুনেছ কি কখনো যে মানুষ কষ্ট কাঠিন্য না করেই সফল হতে পেরেছে অথবা খুব অল্প কষ্টে মানুষ সফল হতে পেরেছে? অবশ্যই না তুমি কখনো এগুলো শুনতে পাওনি আর শুনবেও না। প্রত্যেকটা সফল মানুষের জীবন কাহিনী তোমাকে কাঁদিয়ে ছাড়বে কারণ তাদের সফল হওয়ার যুদ্ধ গুলো ছিল জীবন মরণের যুদ্ধ।

প্রত্যেকটা সফল মানুষের কাছে তুমি শুনতে পারবে তার সফল হওয়ার আত্মপ্রকাশ আত্মঘাতী। তুমি কিছু সফল মানুষের জীবনী ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করে তাহলে বুঝতে পারবে তারা জীবনে কত কষ্ট করেছে এবং সফল হতে পেরেছে। প্রত্যেকটা মানুষ সফল হওয়ার পিছনে যুগ যুগ সময় ব্যয় করেছে অতঃপর জীবনের শেষ মুহূর্তে এসে সফল হয়েছে কিন্তু সেই মুহূর্তটা তার জন্য আনন্দ উপভোগ করা কষ্ট হয়ে যায়।

সফল হতে চাইলে কি করব?

সফল হতে চাইলে প্রথমে নিজেকে নিজের মত করে সাজাতে হবে। দৈনন্দিন জীবনে যে সকল কাজ গুলো করছ সেগুলো একটা রুটিন করতে হবে সেগুলো নিয়ে এনালাইজ করতে হবে। আমরা দৈনন্দিন জীবনে যা ইচ্ছা তাই করে সময় নষ্ট করলে কখনো সফল হওয়া সম্ভব নয়। অবশ্যই সময়কে গুরুত্ব দিতে হবে এবং প্রত্যেকটা মুহূর্ত কে অনেক বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।

সফল হতে চাইলে তোমাকে ভালো মানুষের সাথে চলতে হবে ভালো মানুষের আইডিয়া, বুদ্ধি নিয়ে সামনের দিকে এগোতে হবে। তুমি সফল হতে চাইলে পিছন থেকে তোমাকে অনেক অনেক মানুষ টেনে নীচে নীচে নামানোর চেষ্টা করবে তাদের টানা হেচরা অতিক্রম করে তোমাকে সামনের দিকে উঠে যেতে হবে।

মানুষ তোমাকে পিছনের দিকে টানবে তাই বলে তুমি তাদের টানে চলে আসে এমন না তোমাকে স্ট্রং হতে হবে।  তোমাকে শক্তিশালী হতে হবে। তুমি যদি শক্তিশালী না হয় সে ক্ষেত্রে তোমাকে টেনে হেঁচড়ে কিংবা ধাক্কা দিয়ে নিচের দিকে নিয়ে আসবে। খুব সহজেই একটা মানুষ সফল হতে পারেনা সফল হতে চাইলে তোমাকে সবদিক এনালাইটিক্স করতে হবে সব দিক খেয়াল রাখতে হবে যে তোমাকে খারাপ বলব কে তোমাকে ভালো বলল সবদিকে তোমার নজর রাখতে হবে।

►► আরো দেখো: হারানো মোবাইল খুঁজে পাওয়ার উপায় ২০২২

তুমি হয়তো জানবে, পৃথিবীতে অসংখ্য মানুষ সফল হয়েছেন কিন্তু তাদের আত্মজীবনী ছিল খুবই কঠিন। তুমি যদি সারাক্ষণ নিজের মনগড়া কাজগুলো করতে থাকো আর মনে মনে ভাবতে থাকো আমি একদিন সফল হবো তাহলে সেটা হয়তো নাও হতে পারে কেননা সফল হওয়ার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম অবশ্যই দরকার। (অবশ্য আমি সফল না, তারপরও আমি বুঝতে পারি সফল হতে হলে এগুলো করতে হবে)

সারাদিন অলসের মতো ঘুমিয়ে কাটালে তোমার জীবনে সফলতা না আসার সম্ভাবনা থেকেই যায়। যারা ছোট ছোট চাকরি বা কাজ গুলো কে অবহেলা করে তারা দেখবে একটা সময় কোন কাজে পার্মানেন্ট হতে পারে না। যারা ছোট ছোট কাজ গুলোকে কাজ বলে আখ্যায়িত করে না তারা দেখবে একটা সময় কোন কাজে মন বসাতে পারেনা। সবসময় উচিত ছোট-বড় যে কোন কাজকে সম্মান করা এবং সব ধরনের কাজকে নিজের মতো করে হ্যান্ডেল করা।

যারা মনে করে আমি এত বড় মানুষ আমার মান-ইজ্জত অনেক বড় আমি এইটুকু কাজ কেন করব তারা দেখবে একটা সময় কোন কাজে নিজেকে সামলে রাখতে পারেনা। সব সময় নিমিষেই সবগুলো কাছ থেকে ঝরে পড়ে। তাই ছোট বড় সব কাজকে সম্মান করো এবং সব ধরনের কাজ হ্যান্ডেল করার চেষ্টা করো।

চেষ্টা কি মানুষকে সফল করতে পারে?

হ্যাঁ, তোমার যদি চেষ্টা থাকে পর্যাপ্ত তাহলে হয়তো তুমি একদিন সফল হবে। কারণ আজ অব্দি যারা চেষ্টা করছে পর্যাপ্ত তারা ঠকিনি তারা কোনভাবেই সফল হয়েছে। ঠকেনি যারা চেষ্টা করেছে তারা। সব মানুষের জীবনে হয়তো সুখ আসবে না কিন্তু সফলতা ছোঁয়া চাইলে সবাই জানতে পারে তবে তার শ্রেষ্ঠ থাকতে হবে অপরিসীম।

আমি যদি প্রথম কয়েকদিন পর্যাপ্ত চেষ্টা করি এরপরে হতাশ হয়ে ভেঙে পড়ি তাহলে কিন্তু সফলতা আমার দরজায় কড়া নাড়বে না কিন্তু আমি যদি নিয়মিত আমার কাছে অব্যাহত থাকে তাহলে একদিন সফলতা আমার দরজায় কড়া নাড়তে বাধ্য হবে।

উপরে যে বিষয়টি বলেছি ছোট-বড় সব কাজকে সম্মান করতে হবে। মানুষ সফল হতে বিভিন্ন টিপস ব্যবহার করে যা হতো তাকে সফল হতে দেয় না বরং তার সময় গুলোকে নষ্ট করে দেয়। তুমি যদি বালিশের সাথে মাথা মিশিয়ে চিন্তা করো যে একটা মানুষ কতদিন বেঁচে থাকে এবং তার হায়াত কত থাকে এবং এই দুনিয়াতে তিনি কি কি উপভোগ করতে পারে তাহলে তুমি বুঝতে পারবে সুন্দর পরিমাণ।

প্রত্যেকটা মানুষের গড় আয়ু ৬০-৭৫ বছর। ৭৫ বছরের বেশি মানুষ খুব কম বেঁচে থাকেন এর মধ্যেই নিজের জীবনকে সুন্দর ও সুখময় করে সাজাতে হবে। এই সময়টার জন্য মানুষ নিজেকে বিক্রি করে ফেলি নিজেকে অনেক খারাপ কাজের সাথে জড়িয়ে ফেলে। কেয়ামতের তুলনায় ৬০-৭০ বছর কয়েক মিনিট। যা চিন্তা করলে আমরা হাত ধোয়ার খারাপ কাজের সাথে জড়িত হবো না কিংবা সফল হতে কোন অবৈধ কিংবা খারাপ পথ অবলম্বন করব না।

নিয়মিত চেষ্টা থাকলে অবশ্যই সফল হতে পারবে। তাছাড়া তোমার সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছা থাকলে তোমাকে অবশ্যই সফলতা দিবে তবে তোমার সৃষ্টিকর্তাকে ও খুশি রাখতে হবে। মহান আল্লাহতালার নির্দেশনা অনুযায়ী তুমি চলে হয়তো তোমার সফলতা বেশি দূরে নয়।

সফল হওয়া কি সহজ?

যদি তোমার প্রশ্ন হয় যে সফল হওয়া কতটা সহজ সে ক্ষেত্রে আমি বলব সফল হওয়া মোটেও সহজ নয় এটা পৃথিবীর সবচাইতে কঠিন কাজের মধ্যে অন্যতম একটি কাজ। কেননা, প্রত্যেকটা মানুষের ইচ্ছে তিনি সফল হবেন কিন্তু তুমি যদি ভালো করে খুটিয়া দেখো অধিকাংশ মানুষ এই ইচ্ছেটা পূরণ করতে পারে না এবং সফল হতে পারেনা।

মানুষ যা চাইতো তাই যদি নিমিষেই পেয়ে যেত তাহলে হয়তো পৃথিবীর মানুষ গুলো সব সময় ঘুমিয়ে সময় কাটাতো হয়তো নিজেকে কোন কাজে নিয়োজিত রাখত না। সফল হওয়া সম্ভব তার কাছে যিনি অক্লান্ত পরিশ্রম করবেন। সফল তো চাইলেই মানুষ হতে পারে না অবশ্যই তোমার অক্লান্ত পরিশ্রম বাধ্যতামূলক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.