মোবাইলের চার্জ কেন দ্রুত পড়ে যায়?

এখন দেখা যায় স্মর্টফোন গুগোলই আমাদের কাজে এবং বিনোদনের নিত্যসঙ্গী কথা বলা ভিডিও দেখা গেমিং কলা ইত্যাদি কাজে ব্যবহৃত কলা। আমাদের এইসব কাজে দৈনিক এভারেজে যে ছয়-সাত ঘণ্টারও বেশি ব্যবহার করা হয়। এভাবে প্রতি দৈনিক এত লম্বা সময় ব্যবহারের ফলে আমাদের মোবাইলের চার্জ নিমিষেই কমে যায় এভাবেই আপনার মোবাইলের ব্যাটারি হেলথ দিন দিন কমে যাচ্ছে অথবা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

আজকের আর্টিকেল আমরা কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করব তাই আপনাদের কাছে পুরো আর্টিকেলটি পাড়ার অনুরোধ রইল। অবশ্য এই অপশন গুলো অন করার ফলে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি হেলথ দীর্ঘমেয়াদি হয়ে যাবে এবং আপনার ফোনে চার্জ না থাকার সমস্যাটি সমাধান হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যাবে তাই আপনি পুরো আর্টিকেলটি পড়তে পারেন এবং এটি সম্পর্কে আপনি কার্যকারী কাজ করতে পারেন।

মোবাইলের চার্জ দ্রুত শেষ হয় কেন?

মোবাইলের চার্জ

আপনারা অনেকেই হয়তো অনলাইনে বিভিন্ন জায়গায় দেখেছেন বিভিন্ন টিপস কিন্তু আপনারা বিশ্বাস করতে পারছেন না এই সমস্যার জন্য মূলত মোবাইলের চার্জ দ্রুত শেষ হয়, মোবাইলের চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যাওয়ার পিছনে মূলত কাজ করছে মোবাইল নেটওয়ার্ক। অর্থাৎ আপনি যে কোম্পানির সিম কার্ড ব্যবহার করছেন সেটার নেটওয়ার্ক আপনার এরিয়াতে দূরে নাকি কাছে সেটার উপর ডিপেন্ড করে ফোনের ব্যাটারির চার্জ ক্ষয় করে নিচ্ছে।

যখন একটি স্মার্টফোন ঠিকমতো নেটওয়ার্ক পাইনা মানে যে এরিয়াতে নেটওয়ার্ক খুবই দূরে অর্থাৎ এখানে অতিরিক্ত শক্তি ক্ষয় হওয়ার কারণে ব্যাটারির চার্জ খুব দ্রুত কমে যায় অথবা ব্যাটারির চার্জ পরে যায়। এসময় নেটওয়ার্ক গ্রাফ করতে অর্থাত নেটওয়ার্ক কাভারেজ করতে ফোনের ব্যাটারির শক্তি অনেক বেশি প্রয়োগ করতে হয় যার জন্য দ্রুত ফোনের চার্জ শেষ হওয়ার পসিবিলিটি থেকে যায়।

এটা করতে গিয়ে মোবাইলের নেটওয়ার্ক আইসি ফোনের প্রসেসর এবং মোবাইলের উপরে ইফেক্ট মোবাইলের ব্যাটারির চার্জ খুব দ্রুত কমে যায় একসাথে ফোনটা অনেক গরম হয়ে যায় এই সিস্টেমটা হয়তো আমাদের অনেকের অজানা। সব মোবাইল কোম্পানির নেটওয়ার্ক সব এরিয়াতে সমান নয়। এখন দেখার বিষয় হচ্ছে আপনার এরিয়াতে কোন কোম্পানির নেটওয়ার্ক সবচেয়ে ভালো যে কোম্পানির নেটওয়ার্ক আপনার এরিয়াতে ভালো সে কোম্পানির সিম কার্ড আপনার ব্যবহার করা উচিত কারণ আপনি স্মার্টফোনটা কে ব্যবহার করেন কিংবা না করেন এই অনেক লম্বা নেটওয়ার্কের জন্য আপনার ব্যাটারি ডাউন হতে থাকবে এবং আপনার মোবাইল ফোনটি গরম হতে থাকবে।

সবচেয়ে বেটার হচ্ছে যে আপনার এরিয়াতে যে সিম কার্ডের নেটওয়ার্ক সবচেয়ে ভালো সেই সিম কার্ড ব্যবহার করা। আপনাকে আরেকটা জিনিস বলে রাখছি, যখন আপনি আপনার স্মার্টফোনটি ব্যবহার করছেন না তখন পালরে মোবাইল ডাটা কিংবা ব্লুটুথ ওয়াইফাই এনএফসি এ গুগল সব অফ করে দিন তাহলে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি চার্জ সেই ভাবে

চার্জিং এর ক্ষেত্রে ফোনের অবদান!

মোবাইলের চার্জ

আপনি আসলে কোন চার্জার দিয়ে ফোনের চার্জিং করছেনএটা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কারণ আমরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জনের ফোনের চার্জার থেকে নিজের ফোনে চার্জ কম থাকি ফোনের জন্য এটা কিন্তু আমাদের ফোনের জন্য খুবই খারাপ হতে পারে। প্রতিটা ফোনের সাথে কিন্তু একটি ওরজিনিয়াল একটি চার্জার থাকে এবং একটি অরজিনাল চার্জার ক্যাবেল থাকে যেটা আসলে ওই ফোনটার জন্য বানানো হয়েছে। আমাদের উচিত অরজিনিয়াল চার্জার এবং চার্জার কেবল জেটি আছে সেটা দিয়েই ফোনটাকে সার্চ করা

অনেকেই আমরা যেকোনো চার্জার পেলেই সেই চার্জার দিয়ে আমাদের ফোনটাকে চারজিংন করি এ ধরনের কাজ করবেন নাকারণ এখানে আপনার মোবাইলের এম্পিয়ার এর সাথে ওই চার্জারের MPR মিল নেই আপনার উচিত অরজিনিয়াল চার্জার থেকে ফোনটাকে চার্জিং করা এখন অনেক ক্ষেত্রে অরজিনিয়াল চার্জার কিংবা চার্জার কেবল হারিয়ে যেতে পারে কিংবা নষ্ট হয়ে যেতে পারে সে ক্ষেত্রে যেটা করবেন সেইম কোম্পানির কিংবা সেইম ব্রাউজারের একটি চার্জার কিনে নিতে হবে।আর যদি সেটা সম্ভব না হয় তাহলে ট্রাই করবেন বাজার থেকে ভালো মানের একটি চাল কেনা।

এখানে আরেকটি প্রশ্ন চলে আসেসেটা হচ্ছে পাওয়ার ব্যাংক দিয়ে মোবাইলের চার্জ করা আসলে কতটুকু সেইপ কিংবা কতটুকু উচিত। একটা জিনিস মাথায় রাখবেন নরমাল মোবাইলের চার্জ হয় এসি থেকে ডিসি তে মানে আপনি যখন চার্জিং অ্যাডাপ্টার দিয়ে সার্চ করছেন তখন আসলে আপনি ইলেকট্রিক ডিসি ফর্মে চার্জ করছেন। আল পাওয়ার ব্যাংকের ক্ষেত্রে যেটা হচ্ছে ডিসি টু ডিসিএখানে আসলে আরো অনেক কিছু আছে মানে কিছু টেকনিক্যাল ব্যাপার স্যাপার আছে সে গুগোল আমি বলতে চাচ্ছি না।

আমি যেটা বলতে চাচ্ছিলাম সেটা হচ্ছে পাওয়ার ব্যাংক ট্রাই করবেন একদম নিতান্ত প্রয়োজন না হলে পাওয়ার ব্যাংক ইউজ করবেন না। আর আপনার বাধ্য যদি কখনো পাওয়ার ব্যাংক ইউজ করতে হয় তাহলে ট্রাই করবেন ভালো মানের কোন পাওয়ার ব্যাংক কিনে আনার। এখন প্রশ্ন হচ্ছে আপনার মোবাইলের চার্জ করবেন মানে আপনার ফোনের ব্যাটারি কত পারছেন হলে চার্জ করা উচিত।আপনারা অনেকেই আছেন ফোনের ব্যাটারি টা একেবারে ৫ পারসেন্ট কিংবা ২ পারসেন্ট হয়ে গেলে তর পারে চার্জিং করে ১০০% করে নেওয়া উচিত নয়

নরমাল আপনার ফোনে চার্জ যখন ২০% কিংবা ১৫% চার্জে আসবে তখনি আপনার ফোনটা চার্জে বসিয়ে দিন এবং যখন আপনার মোবাইলে ৮৫% কিংবা ৯০% চার্জ হয়ে যাবে তখনি আপনার ফোনটাকে চার্জ থেকে তুলে ফেলুন। এখনকার স্মার্টফোনগুলোতে যে ব্যাটারি গুগল ইউজ করা হয় এই ব্যাটারি গুলো সাধারণত ২৫% থেকে ৮৫% এরমধ্যে ভালো পারফর্ম করে । আপনার ফোনে ভালো হবে যে আপনি আপনার মোবাইলের চার্জ ২৫% থেকে ৮৫% চার্জের মধ্যে রাখুন।

উপরে দেখানো অথবা লেখা যে টিপস গুলো রয়েছে সেগুলো অবলম্বন করার ফলে আপনার ফোনে দীর্ঘ সময় চার্জ থাকবে এছাড়া আপনার ফোনের হেলথ ভালো থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.