ব্রণ দূর করার উপায়

ব্রণ হচ্ছে এক জাতীয় বয়স্ক ফোড়া। যা প্রায় ৮৭% মানুষের একটা বয়সে এসে হয়ে থাকে এবং একটা সময় আবার এটির সমাধান হয়ে যায়। এটি নারী-পুরুষ উভয়ের হতে পারে নির্দিষ্ট একটা সময়। তবে নির্দিষ্ট সময় পার হওয়ার পরে ব্রণ অটোমেটিক রিমুভ হয়ে যায়। আজকে আমরা জানবো কিভাবে ব্রণ সহজেই রিমুভ করা যায় এবং এটি রিমুভ করার কিছু কার্যকারী টিপস সম্পর্কে আপনাদেরকে জানাবো। তাহলে চলুন শুরু করা যাক ব্রণ দূর করার উপায় কি জেনে আসি।

ব্রণ সবার ঘরে থাকে আবার কিছু কিছু সময় অধিকাংশ মানুষের হয়ে থাকে। যাদের মুখমণ্ডল তেলতেলে তাদের এটি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে যাদের মুখ খসখসে তাদের ব্রণ হয় না।

অধিকাংশ সময় দেখা দেয় যাদের মুখমন্ডল তেলতেলে তাদের ব্রণ হয়ে থাকে। তবে এটি নিরাময়ের অনেকগুলো মাধ্যম রয়েছে যেগুলো সম্পর্কে আমরা একটু পরেই আলোচনা করব। আপনার শরীরের যত্ন নেওয়ার উপরে ডিপেন্ড করে এটি নিরাময় করার মাধ্যম ‌‌।

ব্রণ দূর করার উপায় কী?

যেটা আমরা পূর্বে বলেছি ব্রণ করছে এই গ্রামের বয়স্ক ফোড়া যা অধিকাংশ মানুষের হয়ে থাকে। এটি থেকে মুক্তিলাভের বেশ কয়েকটি মাধ্যম রয়েছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি মাধ্যম হচ্ছে- মুখমন্ডল সব সময় পরিষ্কার রাখা।

দ্বিতীয়তম একটি মাধ্যম হচ্ছে- ঘুমের পূর্বে মুখমণ্ডল পরিষ্কার পানি দিয়ে ধৌত করে টিস্যু বা ছুটি জাতীয় কাপড় দিয়ে মুছে ঘুমানো।

তৃতীয়তম আরো একটি মাধ্যম হচ্ছে- অতিরিক্ত পানি পান করা। অতিরিক্ত পানি পান করার ফলে ব্রণ থেকে আপনি অনেকটা মুক্তি পেতে পারেন। অতিরিক্ত পানি পান করার ফলে আপনার মুখমণ্ডল থেকে তেলতেলে ভাব কেটে যাবে।

চতুর্থতম আরো একটি মাধ্যম হচ্ছে- চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ক্রিম অথবা লোশন ব্যবহার করা। এতে করে খুব দ্রুত আপনার ব্রণ গুলো রিমুভ হতে থাকবে। চিকিৎসকের পরামর্শের বাইরে ওষুধ ব্যবহারের পরামর্শ থাকবে না।

পঞ্চম তম একটি মাধ্যম হচ্ছে- দিনে মিনিমাম ৭-৮ বার মুখমন্ডল ধৌত করা এবং তা পরিষ্কার পানি দ্বারা ধৌত করা এবং টিস্যু বা নরম সুতির কাপড় দিয়ে মুছে নেয়া।

আরো একটি বেস্ট মাধ্যম হচ্ছে- ভালো ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ক্রিম অথবা লোশন ব্যবহার করতে পারেন তবে এটি ব্যবহার করার চেয়ে উত্তম উপরে যে মাধ্যমগুলো বলেছি সেগুলো এপ্লাই করা।

ব্রণ কেন হয়ে থাকে?

ব্রণ হচ্ছে ছোট ভাতের মত যা একদম ছোট ছোট হয়ে থাকে এবং এগুলো বের করতে অনেকেই ভালো লাগে। তবে আমাদের উচিত সবসময় আমাদের মুখমন্ডল থেকে হাতটি ধরে রাখা কেননা আমরা অধিকাংশ সময় দেখি যে যাদের ব্রণ সমস্যা রয়েছে তারা প্রতিনিয়ত মুখমন্ডলে হাত রেখেই এগুলো রিমুভ করার চেষ্টা করে এটা এক ধরনের ব্যায়াম ও।

ব্রণ হওয়ার অনেকগুলো কারণের মধ্যে মেইন কারণ হচ্ছে মুখমন্ডল তেলতেলে অথবা তৈলক্ত থাকার কারণ। তৈলাক্ত মুখমন্ডল যদি ফ্যাকাশে করতে পারেন তাহলে এটি না হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।

অনেক সময় এটি বংশবিস্তারের জন্য হয়ে থাকে। অনেক সময় দেখা যায় আপনার পরিবারের অনেকে রয়েছে এজন্য আপনার হতে পারে। (তবে এটা খুব কম হয়ে থাকে)

তৈলাক্ত যুক্ত খাবার না খাওয়া উত্তম। তৈলাক্ত খাবার খাওয়ার ফলে এটি হতে পারে। অনেক সময় হাত দ্বারা বর্ণগুলো ফাটানোর ফলে এগুলোর বংশবিস্তার হয়ে থাকে, তাই কখনো হাত দ্বারা এগুলো ফাঠাবেন না।

সতর্কতাঃ

যদিও এটি অটোমেটিক রিমুভ হয়ে যায় একটা সময়ের পরে তবে এই সময়টা পর্যন্ত যদি আপনার অপেক্ষা করতে না পারেন সে ক্ষেত্রে আপনি উপরের মাধ্যমগুলো এপ্লাই করতে পারেন।

তবে সবচাইতে ভালো হচ্ছে অটোমেটিক রিমুভ হয়ে যাওয়ার মাধ্যমটি‌। ব্রণ গুলো হাত দ্বারা কখনোই পাঠাবেন না এতে আরও বেশি করে হবে এবং আপনার মুখমন্ডলে কালো দাগ চলে আসবে।

পানি যত বেশি খাবেন তো তো আপনার ব্রণ সমস্যার সমাধান দূর হবে। তাই অতিরিক্ত পানি খাওয়া আপনার জন্য উত্তম।

ঘুমের পূর্বে অবশ্যই মুখমণ্ডল পরিষ্কার পানি দিয়ে ধৌত করুন এবং শিশু কিংবা সুতির নরম কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন।

যাদের মুখমন্ডল তেলতেলে তারা দীর্ঘ সময় একভাবে স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটার ইউজ করবেন না। এগুলো ব্যবহার করার জন্য নির্দিষ্ট সময় বেছে নিন। স্মার্টফোনের অথবা কম্পিউটারের যে রশ্মি আলো রয়েছে সেটা আপনার মুখমন্ডলে প্রভাব ফেলে যার ফলে মুখমন্ডল তৈলাক্ত হয়।

সর্বদা ফল-মূল, সবুজ সবজি, পানি জাতীয় কোমল খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন এতে আপনার বরং রোগের সমস্য়া সমাধান হবে এবং শরীর সতেজ থাকবে।

আমাদের আর্টিকেলটি কেমন লেগেছে তা জানিয়ে একটি কমেন্ট করতে পারেন এবং আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে সেটি আমাদের নিকট পাঠিয়ে দিতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.