একজন খাঁটি মুসলমানের পরিচয়

আমাদের সমাজে অসংখ্য মুসলমান আছেন যারা শুধুমাত্র নামে মুসলমান কিন্তু কাজে কার্যকলাপে কোনভাবেই মুসলমান নয়। আমাদের সমাজের কিছু সংখ্যক মানুষ আছেন যারা নিজের পাপ গোপন রাখার জন্য মুসলমান ভেসে মানুষের সামনে চলাচল করে কিন্তু সত্যিকার অর্থে তিনি মুসলমান নয়। খাঁটি মুসলমানের পরিচয় পাওয়া বর্তমান সমাজে অনেক বেশী কষ্টকর।

এই আর্টিকেলটি আমি কাউকে মেনশন করে কিংবা কারো বিরোধিতা করে লিখছি না আমি কেবল মাত্র আমার মনের ভাষা গুলো প্রকাশ করার চেষ্টা করছি। আমি কেবল মাত্র সমাজের যেগুলো হচ্ছে সেগুলো মানুষকে দেখানোর জন্য তুলে ধরার চেষ্টা করছি হয়তো আমার কথাগুলো অনেকের লেগে যেতে পারে আমি তাদের পায়ে হাত দিয়ে ক্ষমা চাচ্ছি।

আমাদের সমাজে বর্তমানে অনেক বুদ্ধিজীবী আছেন যারা ধর্মকে প্রতিনিয়ত বিক্রি করছেন বিধর্মীদের কাছে। যারা প্রতিনিয়ত আমাদের ধর্মকে হেনেস্তা করে বিভিন্ন ভাবে অপমান করছে যারা আমাদের ধর্মকে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ভাবে বিকৃতি করছে।

খাঁটি মুসলমানের পরিচয়

খাঁটি মুসলমান সেই ব্যক্তি যার মধ্যে পৃথিবীর কোন জিনিসের উপর লোভ লালসা নেই কোন জিনিস চাওয়া পাওয়া নেই শুধুমাত্র দুবেলা খেয়ে পড়ে আল্লাহর ইবাদাত করার মধ্যে ব্যস্ত থাকেন। অবাক হয়ে যাচ্ছেন যে এমন মানুষ পৃথিবীতে কি আছে আদৌ!

হ্যাঁ এমন অসংখ্য মানুষ আছেন কিন্তু তারা আমাদের চোখের সামনে না তারা আমাদের চোখের সামনে ইবাদত করে না তারা মানুষকে দেখানোর জন্য ইবাদত করে না বরং তারা আল্লাহকে দেখানোর জন্য ইবাদত করছেন।

মানুষকে দেখানোর জন্যই ইবাদত করেন তারা যারা প্রতিনিয়ত মানুষের সামনে আল্লাহকে খুশি করার চেষ্টা করে। আমাদের সমাজে এমন অনেক ভন্ড আলেম আছেন যারা প্রতিনিয়ত মানুষের সামনে এসে বিভিন্ন মাহফিলে ওয়াজ নসিয়ত করা যায় কিন্তু তিনি নিজেই ব্যক্তিগতভাবে বাসায় কিংবা গোপনে আল্লাহকে স্মরণ করে না কিংবা আল্লাহকে মনে করে না।

বর্তমানে বিভিন্ন ওয়াজ মাহফিলে হাজার হাজার টাকার লেনদেন সেখানে গিয়ে মানুষকে অনেক বেশি জ্ঞান দিয়ে থাকে আলেম-ওলামারা কিন্তু তারা শুধুমাত্র নামে অনেক বেশি আলেম কিন্তু কাজে তারা আলেম নয় তারা হচ্ছে জালেম।

খাঁটি মুসলমানের উপর অত্যাচার

বর্তমানে বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন মুসলিম কান্ট্রি রয়েছে যেখানে মুসলমানদের অত্যাচার করা হচ্ছে মুসলিম কান্ট্রি হওয়ার পরেও মুসলমানদের উপর দৈনন্দিন টর্চার করা হচ্ছে দৈনন্দিন প্রচুর অত্যাচার হেনস্থা করা হচ্ছে তাদের সম্মানের জায়গা কোথায়? তারা কোথায় গিয়ে শান্তি পাবে বলেন?

একটু গভীরভাবে চিন্তা করেন যে মুসলিম কান্ট্রি হওয়ার পরেও সেখানে যদি মুসলমানেরা প্রতিনিয়ত প্রতিনিয়ত অপমানিত হয় তাহলে সেখানে একটা মুসলমান কতটুকু সময় টিকে থাকতে পারে নাস্তিকদের মধ্যে।

তবে খাঁটি মুসলমানদের যারা অত্যাচার করে যারা তাদেরকে হেনস্থা করে বিভিন্ন ভাবে অপমান করে তারা কখনো দুনিয়ার বুকে শান্তি পাবে না এমনকি তারা ইহকাল পরকাল দুটোতেই অপমানিত লাঞ্ছিত হবে। যারা আলেম তারা হচ্ছে আল্লাহর বন্ধু তাদের সাথে বেয়াদবি করা এবং আল্লাহর সাথে বেয়াদবি করা বিষয়টা অনেকটা একই।

সমাজে মুসলমানদের মূল্য!

ভাই একটা কথা ভালোভাবে বুঝনা আপনি খাঁটি মুসলমান সমাজে আপনাকে কতটা মূল্য দিচ্ছে সেটা আপনার গণনা করতে হবে না আপনি আল্লাহর কাছে কতটা মূল্যবান সেটা আপনি হিসাব রাখুন কারন সমাজের হিসেবে আপনি জান্নাতি নয় বরং আপনি আল্লাহর হিসেবে জান্নাতী।

সমাজে মুসলমানদের যেই পরিমান নির্ভীক অত্যাচার করা হচ্ছে তাতে মুসলমান হয়তো প্রতিনিয়ত অত্যাচারী হচ্ছে নাস্তিক খ্রিস্টানদের হাতে। আজ প্রত্যেকটা মুসলিম কান্ট্রি নাস্তিকরা কিভাবে রাজত্ব করে সেটা বুঝতে পারি না হয়তো কেয়ামত খুব নিকট ভর্তি রয়েছে যার জন্য এমন হচ্ছে। তবে মনে রাখবেন মুসলমানদের যায় অবশ্যই একদিন হবে সেটা কিয়ামতের পূর্বে হলেও হবে।

মুসলমানদের জয় আবশ্যক তারা জয়লাভ করবে সেটা আজ কিংবা কাল কারণ তারা সরল সঠিক এবং নবীর দেখানো পথ অনুসরণ করেছে তারা আল্লাহকে মেনেছে, তারা আল্লাহর নবী কে মেরেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.