ইউটিউব এর ৩টি টিপস সম্পর্কে জানুন

আমরা অনেকেই ইউটিউব ব্যবহার করে কিন্তু ইউটিউব ব্যবহার এর পিছনে আমরা কত সময় এটা ব্যবহার করি কিংবা এটা আমাদের নেশা হয়ে যাচ্ছে কিনা অথবা ইউটিউব ব্যাবহার আমাদের ক্ষতি হচ্ছে কিনা কিংবা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে যে ডিউটি রয়েছে প্রত্যেকটা কাজের সেই কাজের অতিক্রম হচ্ছে কিনা সে বিষয়ে অবগত না। আজকে আমাদের এই আর্টিকেল এর মধ্যে এমনই গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি টপিক আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো যেগুলো দৈনন্দিন জীবনে এপ্লাই করতে পারেন আপনারা বিভিন্ন কাজের মাধ্যমে।

ইউটিউব আমাদের সবার কাছে একটা জাদুর বাক্সের মতো, বর্তমান প্রেক্ষাপটে এরকম লোক খুঁজে পাওয়া মুশকিল জিনা ইউটিউব ব্যবহার। এই ইউটিউব এর মাঝে এমন কিছু গুরুত্বপূর্ণ সেটিং রয়েছে যেগুলো এপ্লাই করলে আপনার ফোনের ডাটা সেভিং হবে, ব্যাটারি হেলথ সেভিংস হবে, সেই সাথে আপনার তথ্যগুলো ফাঁস হওয়ার চান্স একদমই কমে যাবে।

ইউটিউব ওয়াচ টাইম ট্রাকিং!

ইউটিউব

ইউটিউবে আপনি কতক্ষণ ভিডিও দেখছেন কিংবা আপনি কতক্ষণ ইউটিউব অ্যাপ এর মধ্যে ছিলেন সেটা আপনারা ট্রাক করতে পারবেন। এটা আমরা সবাই অবগত যে অনেকক্ষণ যদি আমরা মোবাইল ব্যবহার করি অথবা মোবাইলে ভিডিও দেখে সেক্ষেত্রে সেটা আমাদের চোখের জন্য অনেক ক্ষতিকর বটে।

আবার অনেকের বাসায় বাচ্চারা ইউটিউব এ সারাদিন কার্টুন কিংবা ভিডিও দেখে, আমরা নিজেরাও বুঝতে পারছি না আমরা কতটা সময় ইউটিউব চালাচ্ছি অথবা একটা বাচ্চা কতটা সময় ইউটিউব ব্যবহার করছে, যদিও আমরা অনুমান করতে পারি কিন্তু বেসিক্যালি কতটা টাইম দেখছে সেটা আমরা সঠিক বলতে পারিনা তো এটার জন্য আজকে আপনাদেরকে একটা গুরুত্বপূর্ণ সেটিংস আমি দেখাবো।

এই ট্রাকিং সিস্টেম করার জন্য আপনাকেআপনার মোবাইলে থাকা ইউটিউব অ্যাপ টি ওপেন করতে হবে এরপরে ডানদিকের উপরের লক্ষ করলে দেখা যাবে প্রোফাইল আইকন রয়েছে সেখানে ক্লিক করতে হবে। অতঃপর প্রোফাইল এর উপরে ট্যাপ করবেন, নিচের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে টাইম ওয়াচড “Time Watched” এটিতে ক্লিক করবেন।

এখানে ক্লিক করার পরে আপনার সামনে সম্পূর্ণ একটি এনালাইটিক্স ওপেন হয়ে যাবে অতঃপর আপনি এখানে দেখতে পাবেন আপনি ইউটিউব অ্যাপ কতক্ষণ ব্যবহার করেছেন। এখানে লেখা রয়েছে টুডে “To Day” আপনি কত মিনিট ইউটিউব দেখেছেন নিচের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে ৭ দিনে আপনি কত মিনিট মোট ইউটিউব দেখেছেন।

উপরের দিকে লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন আপনি প্রত্যেকদিন অ্যাভারেজ এ কত মিনিট ইউটিউবিং করেন কিংবা ইউটিউবে ভিডিও দেখেন। এখান থেকে আপনারা কমপ্লিটলি একটা আইডিয়া পাবেন এবং আপনার রুটিং এর বাহিরে যদি আপনার সময় পার হয়ে যায় সেটি আপনারা এখান থেকে বের করতে পারবেন এবং আপনার বাচ্চারা কতক্ষণ ইউটিউবিং করছে সেটা আপনারা এখান থেকে নিমিষেই এনালাইটিক্স করতে পারবেন।

নিচের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে “Remind Me to take a break” এই অপশনটি যদি আপনি অন করে দেন সে ক্ষেত্রেএখানে আপনাকে টাইম সেট করার একটা অপশন দিবে অর্থাৎ আপনি প্রত্যেকদিন কত সময় ইউটিউবে ভিডিও দেখতে চান সেরকম একটা টাইম এখান থেকে সিলেক্ট করতে পারবেন। এখানে টাইম সিলেক্ট করার পরে আপনি ওই টাইম এর পরে যদি ইউটিউবে ভিডিও দেখতে থাকেন সেক্ষেত্রে ইউটিউব থেকে আপনাকে একটা নোটিফিকেশন দিবে অর্থাৎ আপনাকে একটা ওয়ার্নিং দিবে।

ফোনের ডাটা সেভিং!

ইউটিউব

এই সেটিংস টির মাধ্যমে আপনার ফোনের ডাটা অনেক সেইভ হবে। বেসিক্যালি যারা মোবাইল ডাটা ব্যবহার করে ইউটিউব ভিডিও দেখে কি ব্রাউজিং করে তাদের জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা টিপস। বিশেষ করে এই সেটিংস এর মাধ্যমে আপনার শুধু data-saving নয় আপনার ফোনের ব্যাটারি সেভিং করবে অনেকটা তাই আমি মনে করি এই টিপস অনেকের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আপনি হয়তো এটা খেয়াল করে থাকবেন যখন আপনি ইউটিউব এর হোমপেজ স্কোল কিংবা ভিজিট করছেন তখন ভিডিওগুলো অটোপ্লে হয়ে যায়, অর্থাৎ আপনি যখন হোম পেইজ ভিজিট করবেন তখন কোন একটা ভিডিওর উপর হাত রাখা মাত্রই সেটা থেকে অল্প একটু অটোপ্লে হয়। আর এভাবেই ভিডিওগুলো যখন অটোপ্লে হয়ে থাকে তখন যারা মোবাইলের ডাটা ব্যবহার করে ইউটিউব দেখে তাদের জন্য আরেকটা সমস্যা হতে পারে কিংবা সমস্যা হয়ে থাকে।

এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য প্রথমে ইউটিউব ওপেন করার পরে উপরের ডান দিকে আপনার যে প্রোফাইল আইকন রয়েছে সেখানে ক্লিক করুন, আমাদের গতকাল সেটিংসে “Settings” রয়েছে সেখানে ক্লিক করুন, এরপরে লক্ষ করলে সবার উপরে দেখতে পারবেন জেনারেল “General” বলে একটি অপশন রয়েছে সেটাতে ক্লিক করুন। পাওয়া তোমার এখানে ক্লিক করার পর নিচের দিকে একটা অপশন রয়েছে “Muted playback in feeds” এই অপশনটিতে ক্লিক করবেন। এখানে ক্লিক করার পর তিনটি অপশন দেখবেন এটা আপনি এখান থেকে বন্ধ করে দিবেন “Off” নামে যে বাটন রয়েছে সেটিতে ক্লিক করবেন তাহলে এটি বন্ধ হয়ে যাবে।

এটা বন্ধ করার ফলে এখন আর ইউটিউবের হোম পেইজে ভিডিওগুলো অটো পেলে হবে না এবং আপনার ডাটা প্লাস মোবাইল ব্যাটারি অনেক সেইপ হবে আমি মনে করি এই অপশনটি কিংবা এই সেটিংস টি অনেকের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে তাই এটি আপনার করা উচিত।

সার্চ হিস্টোরি গোপন রাখা!

ইউটিউব

আমরা অনেকেই আছি যারা অন্যের ফোন থেকে নিজের চ্যানেলকে সাবস্ক্রাইব কিংবা নিজের ভিডিও কে দেখার জন্য সার্চ অপশন এ ক্লিক করে সার্চ করে থাকি কিন্তু আমরা যখন মোবাইলটি থেকে বেরিয়ে আসি তখন কিন্তু ওখানে ঠিকই আমাদের সার্চ করা সেই কী-ওয়ার্ডটি হিস্টরি হয়ে থাকে যার ফোন সে চাইলেই আপনার সার্চ করা ওই কী-ওয়ার্ডটি দেখতে পারবে এটি কিন্তু আমাদের জন্য অনেকটা সমস্যা দায়ক হয়ে থাকে।

আপনি যেটা করতে পারেন তা হচ্ছে আপনার বন্ধু কিংবা অন্য কোন ফোন অর্থাৎ যে ফোনে আপনি কোন সার্চ হিস্টোরি রাখতে চান না সে ফোন থেকে যদি আপনি ইউটিউব এর ভিডিও দেখতে চান সে ক্ষেত্রে আপনি ওই ফোনে থাকা ইউটিউব সফটওয়্যার টি ওপেন করুন অতঃপর উপরের দিকে ডান পাশে যে প্রোফাইল আইকন রয়েছে সেটিতে ক্লিক করুন এবং নিচের দিকে লক্ষ্য করুন লেখা রয়েছে “Turn On Incognito” এই অপশনটিতে ক্লিক করুন।

এখন কি এখানে টাইপ করার ফলে আপনার সামনে Youtube-এর সেইম হোমপেজ সবকিছু আবারো করবে কিন্তু এটা কোন জিমেইল আইডি দিয়ে লগইন করা না এটা পার্সোনাল একটা ইউটিউব এর ব্রান্ডিং এখানে আপনি কিছু সার্চ করলে সেটা পরবর্তীতে কেউ দেখতে পারবে না অর্থাৎ এটাকে বিভিন্ন সময়ে পার্সোনাল ইউটিউব ব্রাউজিং বলা হয়ে থাকে।

এখান থেকে যদি আপনি এখন কোন ভিডিও চালান তাহলে সেটা কেউ বুঝতে পারবে না অর্থাৎ কিছু সার্চ করলে সেটা কেউ বুঝতে পারবে না কিন্তু এখান থেকে আপনি কোন চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে পারবেন না এই মরে আপনি কোন চ্যানেল সাবস্ক্রাইব বা কোন লাইক দিতে পারবেন না শুধুমাত্র ভিডিও দেখতে পারবেন কিংবা সার্চ করতে পারবেন চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করার জন্য আপনাকে জিমেইলে মুভ করতে হবে।

যখন আপনার ভিডিও দেখা হয়ে যাবে অর্থাৎ যখন তাকে আপনি ফোনটা ব্যাক করে দিবেন তখন উপরের ডান পাশে প্রোফাইলের জায়গায় যে আইকন রয়েছে সেখানে ক্লিক করুন অতঃপর নিচের দিকে লক্ষ্য করুন লেখা রয়েছে “Turn Off Incognito” এটাতে ক্লিক করে দিন এবার আপনি জেনারেল যে বুট ব্যবহার করেছিলেন সেটি তে কনভার্ট হয়ে গিয়েছে এখন আপনি যদি কিছু সার্চ করেন তখন সেটা দেখা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.